May 17, 2021, 4:22 pm

নোটিশ
ব্রাহ্মণবাড়িয়া নিউজ ২৪ ডটকম এ আপনাদেরকে স্বাগতম:: ব্রাহ্মণবাড়িয়া নিউজ ২৪ ডটকম এ প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন, যোগাযোগ- মোঃ নাজিম উল্লাহ নাজু, সম্পাদক ও প্রকাশক, ব্রাহ্মণবাড়িয়া নিউজ ২৪ ডটকম, কাজীপাড়া, ব্রাহ্মণবাড়িয়া। মোবাইলঃ 01732877149, নির্বাহী সম্পাদক, আরাফাত আহমেদ, মোবাইলঃ 01916608000
সংবাদ শিরোনাম
ঈদ উপলক্ষে টানা ৪ দিন বন্ধের পর আখাউড়া স্থলবন্দরের আমদানি রপ্তানি শুরু ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানায় নতুন ওসি এমরানুল ইসলামের যোগদান আশুগঞ্জে পৃথক ৩টি অভিযানে বিপুল পরিমাণ মাদকসহ ৫ জন আটক শহরের কান্দিপাড়া থেকে ৩ টি চোরাই মোটরসাইকেল’সহ ১ যুবক আটক শিক্ষক, কর্মচারী ও অসহায় প্রতিবন্ধীদের ঈদ উপহার দিল প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় র‍্যাবের অভিযানে ৮ জন জুয়ারি আটক ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তাণ্ডবে জড়িত ২ হেফাজত কর্মী গ্রেফতার ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজত সভাপতি-সেক্রেটারির নামে এমপির মামলা সপ্তাহের ব্যবধানে আখাউড়ায় ২ অটোরিক্সা চালকের লাশ উদ্ধার: আটক ২ পাইকপাড়ায় পুকুর ভরাটের দায়ে তিনজনের কারাদণ্ড
রোজা রাখায় ত্রিপুরায় মুসলিম যুবক কে মারধর বিজেপি ও আরএসএস কর্মীর 

রোজা রাখায় ত্রিপুরায় মুসলিম যুবক কে মারধর বিজেপি ও আরএসএস কর্মীর 

আশরাফুল মামুন: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া সীমান্তবর্তী ত্রিপুরা রাজ্যের আগরতলায় পবিত্র রমজানে রোজা রাখা ও ধর্মীয় রীতি পালনের দায়ে আবুল হোসেন চৌধুরী নামে এক যুবক কে তার বাড়ীতেই লাঠিপেটা করেছে ক্ষমতাসীন বিজেপি ও হিন্দু উগ্র সংগঠন আরএসএস এর কর্মী জুটন দাস। এমনকি জুটন দাস এই বলে হুমকি দিয়ে যায় যে এই এলাকায় থাকতে হলে নামাজ রোজা পালন ও মুসলমান হয়ে থাকা যাবে না হিন্দু ধর্ম গ্রহন করতে হবে।

ত্রিপুরা রাজ্যের স্থানীয় অনলাইন পোর্টাল “তরঙ্গবার্তা ডট কম ” সুত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

নিচে তরঙ্গবার্তার নিউজটি হুবহু তুলে ধরা হলো

লকডাউনের মধ্যেও সমান তালে এগিয়ে চলছে ত্রিপুরা রাজ্যের রাজধানী আগরতলায় সমাজ দ্রোহীদের বাড়বাড়ন্ত। রাজধানী এখন সমাজ দ্রোহীদের ধারা অপরাধের মৃগয়া ক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে। শ্লীলতাহানি থেকে শুরু করে ছিনতাই সংখ্যালঘুদের উপর আক্রমণ কোনটাই বাদ যায়নি। গতকাল রাতে ধর্মান্তরকরণের হুমকি দিয়ে এক সংখ্যালঘু যুবককে মারধর করার নাক্কারজনক ঘটনা ঘটে বিজেপি শাসিত ত্রিপুরায়।

 

অভিযোগে জানা গিয়েছে, বুধবার রাত নয়টার দিকে আগরতলা রামনগর বর্ডার গোলচক্করের বাসিন্দা আবুল হোসেন চৌধুরী তার বাড়ির গেটের পাশে দাঁড়িয়ে প্রতিবেশী ব্যক্তিদের সাথে কথা বলছিলেন। এমন সময় বিজেপি ও আরএসএসের কর্মী যুটন দাস এবং বিকাশ দাস কোনরকম কারণ ছাড়াই আবুল হোসেন চৌধুরীর উপর লাঠি দিয়ে আক্রমণ করে গুরুতর আহত করে। দুষ্কৃতীরা আবুল হোসেন চৌধুরীকে বলে যায়, এই এলাকায় সংখ্যালঘুরা থাকতে হলে হিন্দু ধর্ম গ্রহণ করতে হবে মুসলমান ধর্মীয় রীতি পালন করা যাবে না। না হলে তাদের উপর এরকম আক্রমণ অব্যাহত থাকবে।

 

এই ঘটনার পর আবুল হোসেন চৌধুরী পশ্চিম আগরতলা থানায় দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেন। কিন্তু ওই দুষ্কৃতীরা ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দলের ছত্রছায়ায় আশ্রয়ের ফলে গ্রেফ্তার তো দুরের কথা প্রশাসনের তরফে এখনও পর্যন্ত কোন পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ৷ স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, এর আগেও ওই দুষ্কৃতীদের উৎপাত থেকে রক্ষা পেতে এলাকাসীর তরফ থেকে একাধিকবার এদের বিরুদ্ধে মামলা করা হলেও  অজ্ঞাত কারণে  পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি।

 

এতে স্বাভাবিকভাবেই ত্রিপুরা রাজ্যে সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা নিয়ে উঠছে নানা প্রশ্ন। এহেন পরিস্থিতিতে ওই এলাকার সংখ্যালঘুরা আতঙ্কের মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন এবং সমাজ দ্রোহীদের প্রতি যথাযথ ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী।

 

এ বিষয়ে মোবাইলে সরাসরি  যোগাযোগ করা হলে আবুল হোসেন চৌধুরী প্রতিবেদক কে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আমি একজন পলিউমার প্রকৌশলী। আমার পিতা ও মাতা সরকারি অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা। ঐদিন তারাবীহ নামাজের জন্য অযু করে আমার বাড়ীর গেইটে দাড়িয়ে ছিলাম তখন জুটন ও তার সহযোগী বিকাশ দাস মুসলমানদের নিয়ে অশ্লীল গালিগালাজ করতে লাগলো,  আমি এর প্রতিবাদ করে বললাম আমার অপরাধ কি তখন সে বললো তুই এখানে কি করছিস তখন আমি বললাম সারাদিন রোজা রেখেছি এখন নামাজ পড়বো তখন  রোজা ও নামাজের কথা বলায় তখন একটি অশ্লীল শব্দ ব্যবহার করে লাঠি দিয়ে মারতে লাগলো। এবং যাওয়ার সময় হুমকি দিয়ে বলে গেলো এইখানে থাকতে হলে রোজা নামাজ চলবে না হিন্দু  ধর্ম  গ্রহন করতে হবে। আবুল হোসেন  আরো বলেন আমি থানায় এফআইআর দায়ের করেছি এবং আমি যাতে বিচার পাই সে জন্য দেশ ও আন্তর্জাতিক  মুসলিম সংস্থার সাহায্য চেয়েছি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Copyright @ brahmanbarianews24.com