April 17, 2021, 3:09 am

নোটিশ
ব্রাহ্মণবাড়িয়া নিউজ ২৪ ডটকম এ আপনাদেরকে স্বাগতম:: ব্রাহ্মণবাড়িয়া নিউজ ২৪ ডটকম এ প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন, যোগাযোগ- মোঃ নাজিম উল্লাহ নাজু, সম্পাদক ও প্রকাশক, ব্রাহ্মণবাড়িয়া নিউজ ২৪ ডটকম, কাজীপাড়া, ব্রাহ্মণবাড়িয়া। মোবাইলঃ 01732877149, নির্বাহী সম্পাদক, আরাফাত আহমেদ, মোবাইলঃ 01916608000
সংবাদ শিরোনাম
ফুলবাড়িয়ায় ঘুড়ি উড়াতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে শিশুর মৃত্যু আখাউড়া ধাতুর পহেলা প্রবাসী সমাজ কল্যাণের উদ্যোগে ইফতার সামগ্রী বিতরণ তারাবির নামাজে সর্বোচ্চ ২০ জন মুসল্লি অংশগ্রহণ করবেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৯১০ পিস ইয়াবাসহ নারী মাদক ব্যবসায়ী আটক ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেওয়া ২০ রাউন্ড গুলি উদ্ধার রাস্তায় বসে দায়িত্বভার গ্রহণ করেলেন নবনির্বাচিত পৌর মেয়র ও কাউন্সিলরগন সরাইলে ফেন্সিডিল, গাঁজা ও প্রাইভেটকার‘সহ মাদক ব্যবসায়ী আটক ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল ভাঙচুরকারী যুবক গ্রেপ্তার ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বাস ও পিকআপের মুখোমুখি সংঘর্ষে ২০ পুলিশ সদস্য আহত ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজতের বিক্ষোভ, রেলস্টেশনে অগ্নিসংযোগ
মাদকাসক্ত মেয়ের আঘাতে বাঞ্চারামপুরে আখাউড়ার এক গৃহবধূ নিহত 

মাদকাসক্ত মেয়ের আঘাতে বাঞ্চারামপুরে আখাউড়ার এক গৃহবধূ নিহত 

আশরাফুল মামুনঃ ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বাঞ্ছারামপুরে উপজেলায় মাদক সেবনের টাকা না দেওয়ায় মেয়ে পাপিয়া বেগম(২৭) ক্ষুদ্ধ হয়ে কেচি দিয়ে তারই গর্ভধারীনী মা রহিমা বেগম (৫০) কে খুন করেছেন। রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারী) সকাল ভোর ছয়টার দিকে অত্র উপজেলার আইয়ূবপুর ইউনিয়নের দশআনী গ্রামে এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ঘাতক মেয়ে পাপিয়া বেগমকে  আটক করেছে থানা পুলিশ।

নিহত রহিমা বেগম স্বামীর নাম বাবুল মিয়া। তার স্বামীর বাড়ি  জেলার আখাউড়া উপজেলার দেবগ্রামে হলেও বিয়ের পর থেকে তিনি বাবার বাড়িতেই থাকতো। পুলিশ জানায়, রোববার সকাল ছয়টার দিকে মার কাছে ইয়াবা কেনার জন্য টাকা চান পাপিয়া বেগম। এ নিয়ে মা-মেয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে পাপিয়া বেগম রহিমা বেগমের পেটে কেচি দিয়ে আঘাত করেন। এতে তিনি গুরুতর আহত হলে তাকে প্রথমে দশআনী বাজারে বাবুল মিয়ার ফার্মেসিতে নেওয়া হয়। পরে তাকে বাঞ্ছারামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ঘোষণা করেন।

এলাকাবাসী জানায়,পাপিয়া মাদকাসক্ত ছিলেন। মাদকের টাকার জন্য পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কলহ লেগেই থাকতো পাপিয়া ও তার স্বামী ইসহাকও মাদকাসক্ত। উক্ত ইউনিয়নের দশআনী গ্রামের করিম মিয়ার মেয়ে রহিমা বেগমের সঙ্গে বিয়ে হয় আখাউড়া উপজেলার দেবগ্রাম বাবুল মিয়ার সাথে। বিয়ের পর থেকে স্বামীসহ বাবার বাড়িতে বসবাস করছিলেন তিনি। বড় মেয়ে পাপিয়া বেগম( ২৭) প্রথম স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদের পর দুই বছর আগে আইয়ুবপুর গ্রামের ইসহাক মিয়া নামের এক যুবককে বিয়ে করেন। কিন্তু ইসহাক মিয়ার পরিবার এই বিয়ে মেনে না নেওয়ায় তিনিও পাপিয়ার বাবার বাড়িতে অবস্থান করছিলেন।

বাঞ্ছারামপুর মডেল থানার ওসি রাজু আহমেদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মেয়ের কেচির আঘাতে মা মারা যাওয়ার খবর পেয়ে আমরা অভিযান চালিয়ে ঘাতক পাপিয়াকে আটক করেছি তবে এই পরিবারের অনেকেই মাদকসেবন করেন বলে শুনেছি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Copyright @ brahmanbarianews24.com